দেশ

নেতাজি ভারতীয়দের হৃদয়ে বেঁচে ছিলেন, বেঁচে রয়েছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন: ডক্টর অনিতা বসু পাফ

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫-তম জন্ম দিবসের প্রাক্কালে আজ ভারত সরকারের প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো এবং আঞ্চলিক আউট্রিচ ব্যুরো জয়পুর একটি ওয়েবিনারের আয়োজন করে। পরাক্রম দিবস-কে সামনে রেখেই এই ওয়েবিনারের আয়োজন করা হয়। আজাদী কা অমৃত মহোৎসবের অঙ্গ হিসেবে ভারত সরকার প্রতিবছর ২৩ জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিবসটিকে পরাক্রম দিবস হিসেবে উদযাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আজকের এই ওয়েবিনারে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর কন্যা ডক্টর অনিতা বসু পাফ এবং নাতনি শ্রীমতি রেনুকা মালাকার। অতিথি বক্তা হিসাবে প্রবীণ সাংবাদিক শ্রী মহেশচন্দ্র শর্মা উপস্থিত ছিলেন।

নেতাজি কন্যা ডক্টর অনিতা বসু পাফ জার্মানি থেকে এই ওয়েবিনারে যোগ দেন। তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, নেতাজি ভারতীয়দের হৃদয়ে বেঁচে ছিলেন, বেঁচে রয়েছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন। যদিও তাঁর পিতা ধর্মপ্রাণ হিন্দু ছিলেন, কিন্তু তবুও তিনি সমস্ত ধর্মকে সম্মান করতেন।

তিনি বলেন, তার পিতা এমন একটি ভারতের স্বপ্ন দেখেছিলেন যেখানে সমস্ত ধর্ম শান্তিপূর্ণভাবে সহাবস্থান করবে। তিনি বলেন, নেতাজি লিঙ্গসমতা একজন চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। তার দৃষ্টিভঙ্গি ছিল এমন একটি জাতি গড়ে তোলার যেখানে নারী ও পুরুষের কেবল একই অধিকার থাকবে না, একই দায়িত্ব পালন করতে পারবে।

ডক্টর অনিতা বসু পাফ স্বাধীনতা সংগ্রাম ও জাতি গঠনে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জীবন ও অবদান সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন। তিনি বলেন যে, ভারতের আর্থিক ও অর্থনৈতিক শক্তির বিকাশের একটি স্বপ্ন নেতাজি দেখেছিলেন। ভারত স্বাধীন হওয়ার আগেই একটি পরিকল্পনা কমিশন গঠন করেছিলেন।

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর নাতনি এবং নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বোস আইএনএ ট্রাস্ট-এর প্রাক্তন সেক্রেটারি জেনারেল ও বর্তমান ট্রাস্টি শ্রীমতি রেনুকা মালাকার তাঁর বক্তব্য উল্লেখ করেন যে, ভারতবাসীর প্রতি নেতাজির গভীর প্রেম ছিল। যুব সম্প্রদায় হচ্ছে ভারতের ভবিষ্যৎ। নেতাজি সর্বদাই চেয়ে ছিলেন যুব সমাজকে তাদের মনের মধ্যে থাকা জাতিকে সবার ওপরে রাখতে, যাতে ভারতকে অগ্রগতির পথে কেউ আটকাতে না পারে।

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জীবনী নিয়ে বিশদভাবে বর্ণনা করার সময় বরিষ্ঠ সাংবাদিক ও লেখক শ্রী মহেশ চন্দ্র শর্মা বলেন যে, নেতাজি জাতিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছিলেন। তাই, যুবকদেরও সেই জাতির জন্য সংগ্রাম করা উচিত। যা হবে ঐক্যবদ্ধ, শক্তিশালী এবং ধর্ম ও বর্ণ বৈষম্য থেকে মুক্ত। তিনি জানান যে, জাতির প্রতি নেতাজীর যে উৎসর্গ তা ভারতের যুবকদের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে রয়েছে।

আজকের এই ওয়েবিনারের শুরুতে প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর অতিরিক্ত মহাপরিচালক (আঞ্চলিক) ডক্টর প্রজ্ঞা পালিওয়াল গৌড় উদ্বোধনী ও স্বাগত ভাষণ দেন। তিনি তাঁর ভাষণে বলেন যে, নেতাজির অদম্য চেতনা এবং জাতির প্রতি নিঃস্বার্থ সেবাকে সম্মান ও স্মরণ করার জন্য ভারত সরকার দেশের মানুষের বিশেষ করে যুবকদের অনুপ্রাণিত করতে প্রতি বছর ২৩ জানুয়ারি, নেতাজির দিবসটিকে ‘পরাক্রম দিবস’ হিসেবে উদযাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আজকের এই ওয়েবিনারে ২০০ জনেরও বেশি অংশগ্রহণ করেন।

ওয়েবিনারের শেষে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের উদ্যোগে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এই ওয়েবিনারের সঞ্চালনা করেন প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো, জয়পুরের উপ অধিকর্তা শিব পাওয়ান সিং ফৌজদার।

নজরে বাংলা
NAJORE BANGLA, founded over 5 years ago, is a well known Bengali, Hindi & English News and Entertainment Web Portal which has a wide-range readers throughout India, all districts of West Bengal, Tripura, Assam and specially in Bangladesh. We have renowned journalists country-wide and in abroad are servicing through their profession. Please send your feedback to najorebangladesk@gmail.com.
http://najore-bangla.com

Leave a Reply