রাজ্য

পাকা রাস্তার দাবিতে ভোট বয়কটের ডাক ইঁন্দপুরের শাঁকড়া সহ পাঁচ গ্রামের

মানস রায়, বাঁকুড়া : বাঁকুড়া জেলায় ভোট যত এগিয়ে আসছে গ্রামবাসীরা তত ভোটকে হাতিয়ার করে তাঁদের দাবির পথে হাটচ্ছে। সপ্তাহ দুয়েক আগে জঙ্গলমহলের সারেঙ্গা ব্লকের সাঁইতোড়া গ্রামবাসীরা জল ও স্কুলের দাবিতে ভোট বয়কট ডাকে। আবার জঙ্গলের ইঁন্দপুর ব্লকের শাঁকড়া সহ পাঁচটি গ্রামের মানুষ ডাক দিল ভোট বয়কটের। গ্রামের বেহাল রাস্তা দ্রুত পাকা করার দাবিতে ‘ভোট বয়কট’-এর ডাক দিলেন বাঁকুড়ার ইন্দপুর ব্লক এলাকার পাঁচটি গ্রামের মানুষ। এই বিষয়ে তাঁদের সিদ্ধান্ত ইন্দপুরের বিডিও তথা ব্লক নির্বাচন আধিকারিককে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে বলে গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, ইন্দপুরের গৌরবাজার ও ভেদুয়াশোল গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার শাঁকড়া-ডাবর, রুনুডি, গোয়ালাডাঙ্গা, হরিডিহি, মেজুয়া গ্রামের বহির্জগতের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র রাস্তা দীর্ঘদিন বেহাল। বিগত ৪৫ বছর ধরে এই রাস্তায় এক ঝুড়ি মাটিও পড়েনি বলে তাদের অভিযোগ। এই মুহূর্তে ঐ রাস্তা এতোটাই বেহাল যে পাঁচটি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ এক প্রকার গৃহবন্দী হয়ে পড়েছেন। ছাত্র ছাত্রীদের স্কুল, কলেজ, টিউশানি, চাকুরিজীবি মানুষের কর্মক্ষেত্রে যাওয়া একপ্রকার প্রায় বন্ধ। গ্রামে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে বেহাল রাস্তার কারণে অ্যাম্বুল্যান্স পর্যন্ত ঐ গ্রাম গুলিতে ঢুকতে চাইছে না। এই পরিস্থিতিতে রাস্তা সংস্কার ও পাকা করার দাবিতে ‘ভোট বয়কট’ করা ছাড়া কোনও পথ তাঁদের সামনে নেই বলে গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন। বিষয়টি লিখিতভাবে ব্লক নির্বাচন আধিকারিককে জানানো হয়েছে।

ওই গ্রামগুলিতে গিয়ে দেখা গেল গ্রামের মানুষ বাড়ির দেওয়ালে ভোট বয়কটের ডাক দিয়ে বেশ কয়েকটি দেওয়ালে পোষ্টার দিয়েছেন। তাঁদের দাবি, পাকা রাস্তা না হওয়া পর্যন্ত পাঁচটি গ্রামের শাঁকড়া ও কেলিয়াপাথর এই দু’টি বুথে আগামী লোকসভা নির্বাচনে একটি ভোটও কেউ দেবেন না। গ্রামবাসী রাধাপদ মণ্ডল বলেন, ভূলারখাপ থেকে শাঁকড়া পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার রাস্তা বেহাল। এই রাস্তার উপর দিয়ে প্রতিদিন নিত্য প্রয়োজনে ব্লক সদর ইন্দপুর-বাংলা বাজার, হাসপাতাল সহ অসংখ্য ছাত্রছাত্রী স্কুল কলেজে যায়। এই মুহূর্তে রাস্তা এতোটাই বেহাল বাড়ি থেকে বেরোনোই সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। জরুরী প্রয়োজনে এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে বাধ্য হচ্ছেন মানুষ। ফলে ছোটোখাটো দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে ‘ভোট বয়কট ছাড়া তাঁদের সামনে কোনও পথ খোলা নেই বলেই গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন। প্রয়োজনে একই দাবিতে সম্মিলিত গ্রামবাসীরা বাঁকুড়া-খাতড়া রাজ্য সড়ক অবরোধ করবেন বলেও অনেকে জানিয়েছেন।

NB

Leave a Reply